তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক প’দে দা’য়ি’ত্ব নিলেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়

অবশেষে সকল জল্পনার অবসান ঘটলো। তৃণমূল শিবিরের সবথেকে বড় দায়িত্ব পেলেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। তৃণমূলের যুব সভাপতি পদ থেকে নিষ্কৃতি দিয়ে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে তৃণমূল শিবিরের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক হিসেবে নিযুক্ত করা হলো। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, একসময় এই পদের দায়িত্ব সামলেছেন বর্তমান বিজেপি নেতা মুকুল রায়। বর্তমানে সেই পদের দায়ভার অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে দেওয়া হলো।

এদিন নবান্নে রাজ্যে নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিদের নিয়ে একটি বৈঠকের আয়োজন করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেখানে তিনি দলের সাংগঠনিক পদে রদবদল আনতে গিয়ে একাধিক গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছেন। এর মধ্যে সর্বাপেক্ষা উল্লেখযোগ্য হলো তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক পদে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের মনোনয়ন।

একুশের নির্বাচনে প্রচার পর্ব শুরু হতেই ফ্রন্ট লাইনে দাঁড়িয়ে তৃণমূলের হয়ে প্রচার চালিয়ে গিয়েছেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। সেই কথা মাথায় রেখে এবং আগামী দিনে ২০২৪ সালের লোকসভা নির্বাচনকে গুরুত্ব দিয়েই কার্যত অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাঁধে এতো বড় দায়িত্ব তুলে দিল তৃণমূল শিবির। প্রসঙ্গত এতদিন তৃণমূলের যুব সভাপতি পদের দায়িত্ব সামলেছেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।

অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে তৃণমূলের যুব সভাপতি পদ থেকে সরিয়ে তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক হিসেবে নিযুক্ত করার পর তৃণমূলের যুব সভাপতি পদের দায়িত্ব দেওয়া হলো টলিউডের অভিনেত্রী সায়নী ঘোষকে। এছাড়াও সর্বভারতীয় মহিলা তৃণমূলের সভাপতি হলেন কাকলি ঘোষ দস্তিদার। বারাকপুরের বিধায়ক রাজ চক্রবর্তীকে রাজ্যের কালচারাল প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।