টি’ক’ট’কে ভি’ডি’ও বা’না’তে ব্য’স্ত যু’ব’তী, হটাৎ উঁ’কি দি’লো অ’শ’রী’রী, ভূ’তে’র আ’ত’ঙ্কে কাঁ’প’ছে স’ক’লে

TikTok ভিডিও কলে ব্যস্ত যুবতী, পিছনে উঁকি দিয়ে গেল অশরীরী।এবার TikTok ভিডিও থেকে ছড়াল চাঞ্চল্য। রহস্যজনক এক ব্যক্তিকে লিভারপুল শহরের কাছাকাছি হেলউড শহরের এক মহিলার, নিজের বন্ধুর সঙ্গে ভাগ করে নেওয়া TikTok ভিডিওয় আচমকাই দেখা গেল। যা থেকে ছড়িয়েছে চাঞ্চল্য।

কেইলি করবি ,একজন মহিলা; যার বয়স তেত্রিশ বছর, রাত্রে তাঁর দুই সন্তান ঘুমিয়ে পড়ার পর TikTok-এ একটি ভিডিও বানিয়ে তাঁর এক বন্ধুর সঙ্গে শেয়ার করছিলেন।জন্মদিনের শুভেচ্ছা বার্তা প্রদান করতেই ওই ভিডিও বানিয়েছিলেন বলে জানান মহিলা।

ওই ভিডিও দেখে তাঁর বন্ধুই প্রথম ওই রহস্যজনক ব্যক্তির উপস্থিতি সম্পর্কে কেইলিকে জিজ্ঞাসা করেন৷কেইলি জবাবে কার্যত বাকরুদ্ধ হয়ে যান। ভিডিও করার সময় তিনি কোনও তৃতীয় ব্যক্তির উপস্থিতি টের পাননি বলেই জানান। কেইলি জানান,ওই ভিডিও করছিলেন রাতে তাঁর দুই সন্তান ঘুমিয়ে পড়ার পর, নিজের রান্নাঘরে।তখন কোনও তৃতীয় ব্যক্তির উপস্থিতি তাঁর চোখে পড়েনি।কিন্তু নিজের বন্ধুর কথা শুনে ওই ভিডিও রেকর্ডিং পুনরায় দেখতে গিয়ে,দরজার সামনে ওই রহস্যজনক ব্যক্তিকে দেখতে পান তিনি।

নিজের ও তাঁর ছয় আর সাত বছরের দুই সন্তানের নিরাপত্তার কথা ভেবে নিজের বাবা,মা কে ডেকে পাঠান তিনি। তার বাবা-মা এই মুহূর্তে তাঁর সঙ্গেই থাকছেন।এরকম পরিস্থিতিতে মেয়ে ও তার দুই সন্তানকে ছেড়ে যেতে চাননি তাঁরা। তবে,কেইলি স্থানীয় পুলিশের সাহায্য নেওয়ার কথা এখনও অবধি ভাবেননি। ঘটনাকে নিছক একটি দুর্ঘটনা ভেবেই এড়িয়ে যেতে চেয়েছেন চিনি।