টাইগার হিলে বি’র’ল দৃ’শ্য, মন্দিরে পু’জো দি’তে এ’লো হিমালয়ের কালো ভালুক

মানবজাতি যেমন ঈশ্বরে বিশ্বাস করে তেমনি প্রকৃতির প্রতিটা জীবের ঈশ্বরের প্রতি বিশ্বাস রয়েছে। আমরা হয়তো পাহাড়-পর্বতে, মন্দিরে, রাস্তাঘাটে, দোকানে, বাজারে সমস্ত জায়গাতেই মানব জাতিকে দেখতে পাই ঈশ্বর সাধনায় লিপ্ত কিন্তু প্রকৃতির আর বাদবাকি জীবদের হয়তো চোখে দেখা পড়ে না কারণ আমরা তাদের সাধনার নিয়ম-নীতি, আচার-বিচার বুঝিনা, তবে কোনো কোনো সময় এমন এমন বিরল দৃশ্য আমাদের চোখের সামনে চলে আসে যা বিশ্বাস করতে বাধ্য করায় আমাদের যে গোটা বিশ্বের প্রতিটি জীর ঈশ্বর সাধনায় তাদের মত অনুযায়ী লিপ্ত।

 এমনিতে হামেশাই হাতি, লেপার্ডের লোকালয়ে হানা কার্যত আকছার ঘটনা উত্তরবঙ্গে। এবারে লোকালয়ে হিমালয়ান ব্ল্যাক ভালুকের সন্ধানে উত্তেজনা তৈরি হয়েছে গোটা এলাকায় (Himalayan Black Bear in Tiger Hill)। (তথ্য ও ছবি-- পার্থপ্রতিম সরকার)

এই রকমই একটি দৃশ্য ধরা পড়েছে দার্জিলিঙে। হিমালয়ের একটি কালো ভাল্লুকের ভিডিও ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। একটি কালো ভাল্লুক দার্জিলিংয়ের রাস্তায় অক্টোবরের দিকে ঘুরে বেড়াচ্ছিল। তাকে দেখা গিয়েছিল ভিভিএ স্কুল চত্বরের আশেপাশে ঘুরতে। তারপরে দেখা যায় ওই ভাল্লুকটি পৌঁছে যায় টাইগার হিলে।

 এবার তেমনই কালো ভালুকের দর্শন পাওয়া গেল টাইগার হিলে (Himalayan Black Bear in Tiger Hill)। (তথ্য ও ছবি-- পার্থপ্রতিম সরকার)

উত্তরবঙ্গের সর্বত্রই হাতি, লেপার্ড এগুলোই ঘোরাফেরা করে। এরা লোকালয়ে ঢুকে পড়ে এবং তার ফলে মাঝে মাঝে বিশৃঙ্খলা পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়। একটি ভিডিওতে দেখা যায় ওই কালো ভাল্লুকটিকে টাইগার হিলের দেবী দুর্গার মন্দিরে ঢুকতে। মনে হল যেন রাতের অন্ধকারে সবার আড়ালে নিশ্চিন্ত মনে মায়ের পূজো দিতেই সে এসেছে। তবে সে কোথা থেকে কেমন ভাবে এই মন্দিরে প্রবেশ করলো তা বিষয়ে এখনও জানা যায়নি। এরপর এ খবর জানাজানি হলে বনদপ্তর থেকে কর্মীরা এসে ভাল্লুকটিকে উদ্ধার করে নিয়ে যায় জঙ্গলে। এই ধরনের ভালুক রয়েছে দার্জিলিংয়ের চিড়িয়াখানা এবং বেঙ্গল সাফারি পার্কে।