আইটি সেক্টরে বিপুল সংখ্যক নিয়োগ হবে এবছরে, বেতন হবে দ্বিগুন, সমীক্ষায় উঠে এলো এমনই তথ্য

তথ্যপ্রযুক্তি ক্ষেত্রের সঙ্গে জড়িত এবং কর্মরতদের জন্য সুখবর। চলতি বছরে এই ক্ষেত্রে বিপুল কর্মসংস্থানের সুযোগ রয়েছে। শুধু তাই নয়, তথ্যপ্রযুক্তি ক্ষেত্রে কর্মরতদের বেতনক্রম বৃদ্ধি এবং বোনাস পাওয়ারও সুযোগ রয়েছে এই বছর। সাম্প্রতিক একটি সমীক্ষার রিপোর্ট থেকে এমনই তথ্য উঠে এসেছে। তথ্যপ্রযুক্তি ক্ষেত্রের উপর চালানো ওই সমীক্ষার রিপোর্টে জানানো হয়েছে, গত বছরের তুলনায় এ বছর ৫৩ শতাংশ তথ্যপ্রযুক্তি সংস্থা কর্মীসংখ্যা বাড়ানোর সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে।

শুধু তাই নয়, ৪৩ শতাংশ তথ্যপ্রযুক্তি সংস্থা কর্মীদের বেতন বৃদ্ধির পরিকল্পনাও নিয়েছে বলে জানাচ্ছে ওই সমীক্ষার রিপোর্ট। নতুন বছরের শুরুতেই দেশজুড়ে গণহারে টিকাকরণ কর্মসূচি শুরু হয়ে গিয়েছে। আর এতেই আশার আলো দেখছে তথ্যপ্রযুক্তি সংস্থা গুলি। পেশাদার কর্মসংস্থান ভিত্তিক সংস্থা মাইকেল পেজ সম্প্রতি বিভিন্ন সংস্থার সঙ্গে জড়িত নীতি নির্ধারণকারী এবং কর্মীদের সঙ্গে কথা বলে “ট্যালেন্ট ট্রেন্ডস” নামক এই সমীক্ষার রিপোর্ট পেশ করেছে।

এই রিপোর্ট অনুসারে তথ্যপ্রযুক্তি ক্ষেত্রে কর্মরত কর্মীদের ৬০ শতাংশই মনে করছেন চলতি বছরে তাদের বেতন বৃদ্ধি হতে চলেছে। অন্তত ৫৫ সংস্থা নিশ্চিত করেছে চলতি বছরে তাদের কর্মীদের বেতন বৃদ্ধি হবে। ৪৩ শতাংশ সংস্থা কর্মীদের এক মাসের বেতনের সমপরিমাণ বোনাস দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। বিগ-৪ টিসিএস, ইনফোসিস, এইচসিএল টেকনোলজিস এবং উইপ্রো যৌথ ভাবে অন্তত ৯১ হাজার কর্মী নিয়োগ করবে বলে ওই রিপোর্টে জানানো হয়েছে।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, করোনাকালে বিভিন্ন সংস্থায় work-from-home এর অপশন চালু হয়েছে। এর জন্যে নিত্য নতুন প্রযুক্তির উদ্ভাবন ঘটছে এবং সেগুলির আপগ্রেডেশন চলছে। করোনার আগে থেকেই অবশ্য work-from-home এর চাহিদা ছিল। তবে করোনাকালে এর প্রয়োজনীয়তা বেড়েছে। বিশেষ করে ওয়ার্ক ফ্রম হোমের কারণে তথ্যপ্রযুক্তি সংস্থা বিশেষ লোকসানের সম্মুখীন হয়নি। শিল্প, ব্যবসা-বাণিজ্যের ক্ষেত্রে করোনাকালে ভার্চুয়াল মাধ্যমই বিশেষ গুরুত্ব পেয়েছে। তাই তথ্যপ্রযুক্তি ক্ষেত্রে কর্মীদের চাহিদা বাড়ছে। তার সঙ্গেই বাড়ছে কর্মসংস্থানের সম্ভাবনা।