৭৫% পড়ুয়া বসতে পারেনি JEE পরীক্ষায়, পরীক্ষার্থীদের ভবিষ্যত্‍ নিয়ে কেন্দ্রকে তোপ মমতার

এই করোনা আবহের মধ্যেই জয়েন্ট এন্ট্রান্স পরীক্ষায় বসতে হয়েছে পরীক্ষার্থী দের। এই নিয়ৈই এবার দুষলেন মমতা ব্যানার্জি প্রধানমন্ত্রীকে। মমতা ব্যানার্জি জানিয়েছেন রাজ্যের ২৫% পরীক্ষার্থীরা এই জয়েন্ট পরুক্ষায় বসতে পেরেছে। এই করোনা আবহের মধ্যেই কেনো জয়েন্ট পরীক্ষা করানোর জন্য বাধ্য করল কেন্দ্র, সেই নিয়েই উঠেছে প্রশ্ন। এই কারণেই কেন্দ্রকে দুষলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

আসলে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এই নিট ও জয়েন্ট পরীক্ষা নিয়ে অনেকটাই বিরোধীতা করেছিল। এই করোনা পরিস্হিতির মধ্যে পরীক্ষা কোনোভাবেই নেওয়া উচিত হবে না। এতে ছাত্রদের ক্ষতি হবে। কিন্তু কেন্দ্র সেটা কানে নেয় নি। আর জয়েন্ট পরীক্ষা করিয়েছেন। সাথে নিট পরীক্ষা করানো হবে আগামী ১৩ সেপ্টেম্বর। ঠিক সময়ে পরীক্ষা নিলে হয়তো রাজ্যের সব পরীক্ষার্থীরা এই পরীক্ষা দিতে পারত, কিন্তু মাত্র ২৫% পরীক্ষার্থী এই পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেছে। আর তার জন্য একমাত্র দোষী কিন্তু কেন্দ্র,এমনটাই জানিয়েছে মমতা ব্যানার্জি।

এখানেই শেষ না, এই পরীক্ষার বিরোধীতা করেছে ৬ টি রাজ্য। তারা এই নিয়ে কেন্দ্রকে চিঠি পর্যন্ত দেয়। আর তারপরেই সেটা সুপ্রিম কোর্ট পর্যন্ত দৌড়ায়। তাই এবার নবান্ন থেকে সেটা নিয়েই মুখ খুলেছেন মমতা ব্যানার্জি। তিনি প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশ্য করে বলেন, এত অহং কিসের? পরীক্ষার্থীদের জীবন নষ্ট করার অধিকার আপনাকে কে দিয়েছে। তারা তো বলে নি পরীক্ষা দেবে না, কিন্তু এই করোনা পরিস্হিতির মধ্যে না। এখন কত পরীক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে পারল না, এই দায়িত্ব কে নেবে? আপনি?