মন্দির তৈরিতে চাঁদা দিতে হবে ৫০ হাজার টাকা, রাজি না হতেই বেধড়ক মার অন্তঃসত্ত্বাকে

চাঁদা নিয়ে অশান্তি খাস কলকাতায়, যার কারণে কিনা মারধর অন্তসত্বাকে। ঘটনাটা শুনে অবাক লাগলেও এটাই সত্যি। পর্নশ্রীর ধর্মরাজতলা এলাকার ঘটনা, সেখানেই নাকি তৈরী হবে মন্দির। আর সেই কারণেই দিতে হবে চাঁদা , সেটা দিতে অস্বীকার করাতেই অন্তসত্ত্বাকে বেধরক মারের অভিযোগ ক্লাবের সদস্যদের বিরুদ্ধে। পরে অবশ্য এই বিষয়টি নিয়ে পুলিশকে জানানো হয় নির্যাতিতার পরিবারের পক্ষ থেকে। পরে পুলিশ সূত্রে আরও বিস্তারে জানা যায়, আসলে পর্নশ্রী এলাকায় একটি ক্লাব আছে, আর সেই ক্লাবের সদস্যরাই এই ঘটনা ঘটায়।

তারা নাকি একটি মন্দির করবে এলাকায়, আর সেই জন্য সেখানকার আবাসনে গিয়ে ডোনেশন চায় ৫০ হাজার টাকা করে। প্রতি পরিবারের লোকের কাছ থেকেই ৫০ হাজার টাকা চাঁদা চায়, আর না দিলে হুমকিও দেয় তারা। কিন্তু কয়েকদিন যাওয়ার পরে সেটা ধামা চাপা পরে যায়।

কিন্তু আজ বৃহস্পতিবার ফের তারা আবাসনে গিয়ে হুমকি দেয় ও সেখানে নির্যাতিতার স্বামীর কাছে ৫০ হাজার টাকা চায়, কিন্তু নির্যাতিতার স্বামী অস্বীকার করাতেই ক্লাবের সদস্যরা চড়াও হয়। এরপরেই তার অন্তসত্বা স্ত্রী বাধা দিতেই তাকেও বেধরক মারধর করা হয়। এর পরেই পুলিশের দারস্থ হয় তারা। এখন এটা নিয়ে তদন্ত চলছে, পুলিশ জানায় খুব শিগগিরিই তাদের পাকরাও করা হবে।।