এবার 4G পরিষেবা মিলবে চাঁদেও, নোকিয়ার সঙ্গে হাত মিলিয়ে দাবি নাসার

বর্তমান উন্নত প্রযুক্তির দুনিয়ায় সব সম্ভব। সারা পৃথিবীকে এখন উন্নত মানের ইন্টারনেট কানেকশন দিয়ে কার্যত মুড়ে দেওয়া হয়েছে। এই কানেকশনের মাধ্যমে পৃথিবীর এক প্রান্তের মানুষ অন্য প্রান্তের মানুষের সঙ্গে অনায়াসেই সংযোগ স্থাপন করতে পারেন। এবার চাঁদেও এই প্রযুক্তি আনতে চলেছে নাসা। শীঘ্রই চাঁদে ফোরজি ইন্টারনেট পরিষেবা চালু করা হবে বলে জানা গেছে।

এই পরিকল্পনা বাস্তবায়িত করতে ইতিমধ্যেই বিখ্যাত ফোন প্রস্তুতকারক সংস্থা নোকিয়ার গবেষণাকারী সংস্থা “বেল ল্যাবস” এর সঙ্গে চুক্তি করেছে নাসা। “বেল ল্যাবস” সংস্থাটিই চাঁদে 4G LTE কানেকশন প্রদানের কাজ করবে। এই পুরো পরিকল্পনাটিকে বাস্তবায়িত করতে প্রায় ৩৭০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার খরচ পড়বে বলে জানা গেছে। এরমধ্যে নাসার তরফ থেকে ১৪.‌১ মিলিয়ন মার্কিন ডলার দেওয়া হবে বলে জানানো হয়েছে।

সম্প্রতি, নাসা এবং বেল ল্যাবসের তরফ থেকে টুইটের মাধ্যমে এই পরিকল্পনার কথা ঘোষণা করা হয়েছে। বেল ল্যাবসের তরফ থেকে বলা হয়েছে, ভবিষ্যতে চাঁদের মাটিতে পৃথিবীর মানুষের বসবাসের উপযুক্ত পরিবেশ গড়ে তোলার উদ্দেশ্যেই সেখানে ফোরজি ইন্টারনেট পরিষেবা চালু করার কথা ভাবা হয়েছে। আপাতত ফোরজি চালু করার কথা থাকলেও পরবর্তী ক্ষেত্রে সেখানে 5g পরিষেবা চালু করার ভাবনা চিন্তা চলছে।

উল্লেখ্য, আমেরিকা এবং রাশিয়ার চাঁদে নিজেদের উপনিবেশ গড়ে তুলতে চায়। চাঁদের পাশাপাশি, আর কুড়ি বছরের মধ্যেই মঙ্গল গ্রহে পা রাখার পরিকল্পনা করছে নাসা। এর আগে ২০১৮ সালে চাঁদে ফোরজি পরিষেবা দিতে আগ্রহ প্রকাশ করেছিল ভোডাফোন, নোকিয়া এবং জার্মান গাড়ি নির্মাণকারী সংস্থা অডি। তবে শেষমেষ বেল ল্যাবসকেই এই গুরু দায়িত্ব প্রদান করা হলো।