ত্রুটিপূর্ণ সামরিক সরঞ্জামের জন্য মৃত ২৭ ভারতীয় সেনা, নষ্ট হয়েছে ৯৬০ কোটি টাকার গোলাবারুদ, জানাল সেনা

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির “মেক ইন ইন্ডিয়া” প্রকল্পের আওতায় ভারতীয় প্রতিরক্ষা বাহিনীকে দেশীয় প্রযুক্তিতে যুদ্ধাস্ত্র নির্মাণে উৎসাহী করে তোলা হচ্ছে। তবে ভারতীয় সেনাবাহিনী তরফ থেকে সম্প্রতি যে রিপোর্ট পেশ করা হল, তাতে প্রতিরক্ষা ক্ষেত্রে মেক ইন ইন্ডিয়া প্রকল্পের উপর প্রশ্ন উঠছে। ভারতীয় সেনাবাহিনী সূত্রে জানা গেল, যান্ত্রিক গোলযোগের কারণে ২০১৪ সাল থেকে এ পর্যন্ত ভারতের প্রায় ৯৬০ কোটি টাকা মূল্যের গোলাবারুদ নষ্ট হয়েছে।

শুধু তাই নয়, ত্রুটিপূর্ণ গোলাবারুদ বিস্ফোরণে এ পর্যন্ত ভারতীয় সেনাবাহিনীর প্রায় ২৭ জন জওয়ানের মৃত্যু হয়েছে বলেও জানা গেছে। সেনাবাহিনীর দাবি অনুসারে, “Ordnance Factory Board”-এর তরফ থেকে প্রস্তুত করা গোলাগুলি এবং বোমায় প্রচুর ত্রুটির সন্ধান পাওয়া গেছে। যার জেরে ভারতীয় সেনা জওয়ানদের প্রাণ দিতে হয়েছে, পাশাপাশি অনেক সম্পত্তিও নষ্ট হয়েছে। ২০১৪ থেকে ২০১৯ সালের মধ্যে গোলাবারুদের ত্রুটি থাকার কারণে প্রায় ৪০০টিরও বেশি দুর্ঘটনা ঘটেছে।

পরিসংখ্যান অনুযায়ী, বিগত পাঁচ বছরে ভারতীয় সেনাবাহিনীর প্রায় ৬৫৮ কোটি টাকা মূল্যের বুলেট নষ্ট হয়েছে। ভারতীয় সেনা সূত্রে খবর, ২০১৬ সালে মহারাষ্ট্রের পুলগাওঁয়ে একটি মাইন বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। তদন্ত করতেই জানা যায় মাইনে বেশ কিছু ত্রুটি রয়েছে। ফলে ওই বছরেই প্রায় ৩০৩ কোটি টাকার মাইন নষ্ট করে ফেলা হয়। সেনাবাহিনীর দাবি, বিগত কয়েক বছরে ত্রুটিপূর্ণ সামরিক সরঞ্জামের পেছনে যত টাকা নষ্ট হয়েছে, সেই টাকার বিনিময়ে অনায়াসে ১৫৫ মিলিমিটার মিডিয়াম রেঞ্জ আরটিলারি গান অথবা মাঝারি পাল্লার ১০০টি কামান কিনে ফেলা যেত।

উল্লেখ্য, “Ordnance Factory Board” ভারতীয় প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের অধীনে কাজ করে। “Ordnance Factory Board” এর তরফে প্রস্তুত গোলাবারুদের গুণগতমান সম্পর্কে আরো প্রশ্ন তুলেছেন বিশেষজ্ঞরা। এবার খোদ ভারতীয় সেনাবাহিনীর তরফ থেকে ওএফবির প্রস্তুত করা সামরিক সরঞ্জামের গুণগত মান নিয়ে প্রশ্ন তুলে একরাশ ক্ষোভ উগরে দেওয়া হলো। ফলে, স্বভাবতই যুদ্ধ সরঞ্জামের মান নিয়ে বেশ বিব্রত ভারতীয় প্রতিরক্ষা দপ্তর।