রাস্তা পাড় হতে ব্যস্ত ১৫ ফুটের কুমির, “অ্যাটিটিউড” দেখে থমকে গেলো সকলেই, ভাইরাল ভিডিও

ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টি হলে অনেক সময় উভচর প্রাণীরা জল ছেড়ে উঠে আসে ডাঙায়। এর প্রকৃষ্ট উদাহরণ আমরা কিছুদিন আগেই পেয়েছি, উত্তরপ্রদেশের ফিরোজাবাদ গ্রামের ঘটনা থেকে। সেখানে একটি কুমির আচমকাই ঢুকে যায় গ্রামের এক গ্রামবাসী শৌচালযে। বন কর্মীরা এসে শেষমেষ সেই কুমিরটিকে শৌচালয় থেকে উদ্ধার করে নিয়ে যায়।ফের মধ্যপ্রদেশের রানোদ গ্রামে রাস্তা দিয়ে রীতিমতো হেঁটে চলে যেতে দেখা গেছে এক বিরাট কুমিরকে।

এ যেন জুমানজি সিনেমার রিয়াল ভার্সন। একমনে হাঁটতে হাঁটতে আপনি রাস্তা দিয়ে যাচ্ছেন,আচমকা হাসি মুখে আপনার পাশ দিয়ে চলে গেলো একটি বিশাল কুমির। যদি এমন দৃশ্য আপনি দেখতে পান, তাহলে ঠিক কেমন অনুভুতি হবে আপনার?তেমনি কিছুটা অনুভূতি হয়েছিল মধ্যপ্রদেশের এই গ্রামের মানুষের।স্থানীয় কয়েকজন গ্রামবাসী তাদের গবাদিপশু চড়াতে নিয়ে বেরিয়ে ছিলেন, তখনই তাদের নজরে পড়ে বিশাল আকার কুমিরটি।

প্রথমে কিছুটা ভয়ে হকচকিয়ে যায় তারা।এর পরেই আশেপাশের মানুষদের ডেকে জড়ো করে তারা।তড়িঘড়ি গ্রামবাসীরা এই ঘটনাটি জানায় স্থানীয় পুলিশকে। সেইসঙ্গে বনবিভাগের আধিকারিকদের খবর দেওয়া হয়।

কিন্তু গ্রামবাসীদের অভিযোগ, বনবিভাগের আধিকারিকরা ঠিক সময় ঘটনাস্থলে আসেন নি। তাই তারা নিজেরাই কুমিরটির গলায় দড়ি পরিয়ে তাকে স্থানীয় মাধব সরোবরে ফেরত পাঠিয়ে দেওয়ার ব্যবস্থা করে।সম্ভবত অতিরিক্ত বর্ষার কারণেই কুমিরটি ডাঙায় উঠেছে বলে জানাচ্ছে গ্রামবাসীরা। তবে এর আগেও এমন কুমির ডাঙায় চলে আসার খবর পাওয়া গেছিল। বারবার এমন হওয়াই রীতিমতো আতঙ্কিত স্থানীয়রা।স্থানীয় প্রশাসন আপাতত এই বর্ষার সময়ে গ্রামবাসীদের পুকুর ধারে না যাওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন, দিনের বেলা বের হলেও রাতের বেলা যত সম্ভব বাড়িতে থাকার পরামর্শ দিয়েছে স্থানীয় প্রশাসন।

সব খবর সরাসরি পড়তে আমাদের WhatsApp  Telegram  Facebook Group যুক্ত হতে ক্লিক করুন